×
সাতক্ষীরা জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান

কপোতাক্ষ নদ সাতক্ষীরার দর্শনীয় নলতা শরীফ ঐতিহাসিক গির্জা গুনাকরকাটি মাজার জোড়া শিবমন্দির তেঁতুলিয়া জামে মসজিদ শ্যামসুন্দর মন্দির সোনাবাড়িয়া মঠ মন্দির লিমপিড বোটানিক্যার গার্ডেন রুপসী দেবহাটা ম্যানগ্রোভ পর্যটন কেন্দ্র ঐতিহাসিক বনবিবি বটতলা দেবহাটা জমিদার বাড়ী টাকীর ঘাট (ভারত বাংলাদেশ সীমান্ত চিহ্নিত ইছামতি নদীর তীরে) ভারত বাংলাদেশ সীমান্ত চিহ্নিত ইছামতি নদী মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট মান্দারবাড়িয়া সমুদ্র সৈকত সাত্তার মোড়লের স্বপ্নবাড়ি প্রবাজপুর মসজিদ সাতক্ষীরার গুড়পুকুরের মেলা ঈশ্বরীপুর হাম্মাম খানা/ হাবসিখানা রায় বাহাদুর হরিচরণ চৌধুরীর জমিদার বাড়ি রেজওয়ান জমিদারের বাড়ি ও তেতুলিয়া শাহী মসজিদ বনবিবির বটগাছ আকাশলীনা ইকো ট্যুরিজম সেন্টার খান বাহাদুর কাজী সালামতুল্লা শাহী জামে মসজিদ সুকান্ত ঘোষ স্মরণে স্মৃতিসৌধ
☰ সাতক্ষীরা জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান
সুকান্ত ঘোষ স্মরণে স্মৃতিসৌধ

পরিচিতি

কবি সুকান্ত হলেতো কোথায় ছিলোনা, কোনো এক অখ্যাত সুকান্ত ঘোষ এর স্মরণে টাওয়ারের মতো কিছু একটা বানিয়ে, মূলত তাকে মনে করার চেষ্টা। এটি কোনো বিখ্যাত টাওয়ার নয়, এটি একটি স্মৃতিসৌধ এবং একটি মন্দিরও, উত্ততা প্রায় ৪০-৫০ফিট। এই ভিন্নধর্মী স্থাপত্য নির্মানের কারন সম্পর্কে স্থানীয়দের কাছে জানতে চাইলে দুই জন ব্যক্তির কাছ থেকে আমরা দুই রকম মতামত পাই।

১) ঐ এলাকার উচ্চবিত্ত এক পরিবারের ছেলে যার নাম ছিল #সুকান্ত_ঘোষ, দেখতে সুদর্শন, লম্বা, এবং অনেক ভদ্র, ছেলেটি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করত, কিন্তু কোন এক বিশেষ কারনে, কোন এক বিল্ডিং এর ছাদ থেকে পড়ে আত্নহত্যা করে, কিংবা পড়ে মারা যাইয়।এই জন্য সুকান্ত ঘোষ এর স্মরণে তাঁর পরিবার এই স্মৃতিসৌধটি নির্মান করতেছে বর্তমানে (Dec 2018) এটির কাজ এখনো শেষ হয়নি।

২) অন্য এক জনের কাছে জিজ্ঞাসা করলে উনি একটূ ভিন্ন মত দেন, তিনি বলেন এই এলাকায় সুকান্ত ঘোষ নামে এক ছেলে ছিল, পড়াশোনা করতো রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে মোবাইলে গেম খেলতে খেলতে ছাদের উপর থেকে পড়ে আত্নহত্যা করেছিল। তাঁর পরিবার এই মন্দিরটি নির্মান করতেছে তাঁর স্মরণে। কিন্তু আসল ঘটনা সেটা নয়, আসল ঘটনা অর্থহীন সাম্পাথ ভাই এর কমেন্ট থেকে জানতে পারি সুকান্ত ঘোষ দুরারগ্য রোগে আক্রান্ত ছিল, ওর চিকিৎসার জন্য ওর সকল বন্ধুরা মিলে অনেক টাকা পয়সা তুলে জমা করে কিন্তু দূরারগ্যব্যাধি হওয়া মারা যায়, তারপরে ওর জন্য তোলা টাকা টা ওর স্মৃতি ধরে রাখার জন্য মন্দির নির্মানে দেওয়া হয়। (আজিজুল ইসলাম)

অবস্থান ও যাতায়াত

সাতক্ষীরা জেলার, তালা উপজেলা মহাশ্মশনে এর অবস্থান, মাছিহাড়া বাজার ও গোপালপুর এর মধ্যে।


Total Site Views: 842038 | Online: 12