×
কিশোরগঞ্জ জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান

ঐতিহাসিক ইশা খাঁর জঙ্গলবাড়ী এগারসিন্দুর দুর্গ বাংলার প্রথম মহিলা কবি চন্দ্রাবতীর বাড়ি ও শিবমন্দির দিল্লির আখড়া শোলাকিয়া ঈদগাহময়দান পাগলা মসজিদ অষ্টগ্রাম হাওর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল কুতুব শাহ মসজিদ হোসেনপুর গাংগাটিয়া জমিদার বাড়ী তালজাঙ্গা জমিদার বাড়ি ধলা জমিদার বাড়ি বৌলাই জমিদার বাড়ি / সাহেব বাড়ি বেবুদ রাজার দীঘি শাহ মাহমুদ মসজিদ ও বালাখানা সত্যজিৎ রায়ের পৈতৃক নিবাস(সুকুমার রায়ের বাড়ি) শেখ সাদী মসজিদ কটিয়াদি গোপীনাথ মন্দির
☰ কিশোরগঞ্জ জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান
সত্যজিৎ রায়ের পৈতৃক নিবাস(সুকুমার রায়ের বাড়ি)

পরিচিতি

কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলা থেকে মাত্র কিলোমিটার দূরে মসুয়া গ্রামে অস্কার বিজয়ী চলচ্চিত্রকার সত্যজিৎ রায়ের পৈতৃক বাড়ি রয়েছে। এক সময় এই বাড়িটিকেপূর্ব বাংলার জোড়াসাঁকোবলে অভিহিত করা হতো। এই বাড়িতেই প্রখ্যাত শিশু সাহিত্যিক, সঙ্গীতজ্ঞ উপেন্দ্র কিশোর রায় চৌধুরী সুকুমার রায় চৌধুরী সত্যজিৎ রায় কোনোদিন পৈতৃক বাড়িতে না আসলেও পারিবারিক ঐতিহ্য তাকে গভীর ভাবে প্রভাবিত করেছে তাই বাংলাদেশের সঙ্গে ছিল তাঁর হৃদয়ের টান।

বাড়ির ভেতরে রয়েছে কারুকার্যময় প্রাচীন দালান, বাগানবাড়ি,খেলার মাঠ। বাড়ির পেছনে রয়েছে ছোট একটি পুকুর আর মূল ফটকের বাইরে রয়েছে শান বাধানো একটি পুকুর ঘাট। সত্যজিৎ রায়ের পিতামহের স্মৃতিমাখা এই বাড়িটি বর্তমানে সরকারের রাজস্ব বিভাগের তত্ত্বাবধায়নে আছে।

জীর্ণশীর্ণ বাড়ির দরবার ঘর বর্তমানে মসূয়া ইউনিয়ন ভূমি অফিস হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

অবস্থান যাতায়াত

ঢাকা থেকে ট্রেনে আসতে হলে আপনাকে আন্তঃনগর ট্রেন এগারোসিন্দুর কিংবা কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেসে চড়ে মানিকখালী স্টেশনে নামতে হবে। সেখান থেকে ইজিবাইক বা সিএনজিতে করে আসতে হবে কটিয়াদী।কটিয়াদী থেকে সিএনজি বা ইজিবাইক/অটোরিক্সা করে কিলোমিটার দূরে মসূয়া গ্রামে সত্যজিৎ রায়ের পৈতৃক বাড়িতে যেতে পারবেন।


Total Site Views: 1022748 | Online: 12