×
গাজীপুর জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান

ভাওয়াল (রাজপ্রাসাদ) রাজবাড়ী ভাওয়াল রাজ শ্মশানেশ্বরী ভাওয়াল জাতীয় উদ্যান নন্দন পার্ক কালিয়াকৈর বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক বড়ইবাড়ি প্রত্নতাত্ত্বিক সাইট নাগরী টেলেন্টিনুর সাধু নিকোলাসের গীর্জা বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্ক সুলতানপুর দরগাপাড়া শাহী মসজিদ বেলাই বিল বলধার জমিদার বাড়ী, বাড়ীয়া কাশিমপুর জমিদার বাড়ী গাজীপুর সদর শ্রীফলতলী জমিদার বাড়ী সাটুরিয়া মখশবিল, কালিয়াকৈর জেলার দর্শনীয় রিসোর্ট ও পিকনিক স্পট
☰ গাজীপুর জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান
জেলার দর্শনীয় রিসোর্ট ও পিকনিক স্পট

ভাওয়াল রিসোর্ট

হাতে সময় কম, ঢাকার বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই- এমন পরিস্থিতিতে রিসোর্টই একমাত্র ভরসা। বর্তমানে অল্পতে বেশি আনন্দ উপভোগের উপযুক্ত স্থান রিসোর্টগুলো। প্রাকৃতিক পরিবেশে গড়ে ওঠা নীরব এবং ছায়াঘেরা রিসোর্টগুলো আপনাকে নিয়ে যায় প্রকৃতির সান্নিধ্যে। তেমনই এক রিসোর্ট হচ্ছে গাজীপুরের ভাওয়াল রিসোর্ট। রিসোর্টটি গাজীপুর জেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের নলজানি গ্রামে অবস্থিত। এটি প্রায় ৬৫ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। রিসোর্টে ৫টি জোন ও ৬১টি কটেজ রয়েছে। এখানে ঘুরাঘুরিসহ সুইমিং পুল ও স্পা সুবিধা পাওয়া পায়। চাইলে হানিমুন, ফ্যামিলি ট্যুরসহ বিয়ে, কনফারেন্স, সেমিনার করতে পারবেন। এখানকার পরিবেশ অনেক পরিষ্কার ও পরিছন্ন। অতিথিদের নিরাপত্তার জন্য রয়েছে ৪৫ জন আনসার। রিসোর্টের সার্বিক দেখাশোনার জন্য রয়েছ ১৫০ জন কর্মকর্তা- কর্মচারী। রিসোর্টের সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলো হলো বৃহস্পতি, শুক্র ও শনিবার।ঢাকা থেকে গাজীপুরগামী যেকোনো বাসে যেতে পারেন। গাজীপুর নেমে সেখান থেকে মির্জাপুর ইউনিয়নের নলজানি গ্রামে গেলেই পেয়ে যাবেন। তবে কেউ চাইলে ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়েও যেতে পারেন।


আনসার একাডেমি, সফিপুর
গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর উপজেলায় অবস্থিত আনসার-ভিডিপি একাডেমিতে আছে বনভোজন করার সুযোগ। বেশ কয়েকটি আকর্ষণীয় বনভোজন কেন্দ্র আছে এখানে। প্রয়োজনীয় সব সুবিধাই পাওয়া যাবে। শফিপুর আনসার একাডেমির কয়েকটি বনভোজন কেন্দ্র হল- চারশ জনের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন লেক ভিউ, ভাড়া ২০ হাজার টাকা। আটশ জনের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন তপোবন ও জুঁই, ভাড়া ১২ হাজার টাকা। তিনশ জনের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন মালঞ্চ ও আনন্দ, ভাড়া ১২ হাজার টাকা। চারশ জনের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন ছায়ানীড় ও হাসনাহেনা, ভাড়া ১২ হাজার টাকা। এছাড়া পাঁচশ জনের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন নিরিবিলি বনভোজন কেন্দ্রের ভাড়া ৮ হাজার টাকা। চারশ জনের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন পল্লব, ভাড়া ৮ হাজার টাকা। তিনশ জনের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন অনন্যা, অনামিকা, শাপলা, বর্ণালী, বর্ষা, তেতুলিয়া, বনরূপা, অবসর, ভাড়া ৮ হাজার টাকা। দুইশ জনের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন তনুশ্রী, তরুলতা, বান্দরবান, বনশ্রী, বনলতা, মধুবন ও সৌখিন, ভাড়া ৮ হাজার টাকা। এছাড়া একশ জনের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন সূচনা বনভোজন কেন্দ্রের ভাড়া ৮ হাজার টাকা। এসব পিকনিক স্পটে আছে গাড়ি পার্কিং, রোদ ছাউনি, পানি সরবরাহসহ রান্নার ব্যবস্থা। যোগাযোগ: ০২ ৭২১৪৯৫১-৯

জল ও জঙ্গলের কাব্য
টংগীর পুবাইলে প্রকৃতির সান্নিধ্যে কিছুটা সময় কাটানোর জন্য আছে জল ও জঙ্গলের কাব্য। সবুজ প্রকৃতির মাঝে প্রায় ৯০ বিঘা জমির ওপর গড়ে ওঠা জল ও জঙ্গলের কাব্যে আছে কিছু কটেজ। জমিয়ে আড্ডা দেওয়ার জন্য পানির উপরে আছে মাচান। বিলে ঘুরে বেড়ানোর জন্য আছে নৌকার ব্যবস্থা। এছাড়া এখানকার প্রধান আকর্ষণ, নানান পদের গ্রামীণ খাবার। যোগাযোগ ০১৭৯২৯২৯৭২৭, ০১৯১৯৭৮২২৪৫ 
উৎসব পিকনিক স্পট ও রিসোর্ট: এর অবস্থান গাজীপুরের হোতাপাড়ায়। এখানে বেশ বড়সড় জায়গাজুড়ে আছে বনভোজন করার মতো সব ব্যবস্থা। উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ হল- ‘ট্রি হাউজ’। গাছের মাথায় মজবুত করে তৈরি এ বাড়িতে চড়ে বসে জমিয়ে আড্ডা দেওয়া যায়।ঢাকা থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দূরে ঢাকা ময়মনসিংহ সড়কের হোতাপাড়ার কাছেই এ বনভোজন কেন্দ্র। ছয়শ জনের এক সঙ্গে বনভোজনের সব ব্যবস্থা আছে এখানে। ১৫ এপ্রিল থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত ছোট পরিসরের বনভোজন ও অবকাশ যাপনে পাওয়া যাবে বিশেষ ছাড়। যোগাযোগ ০১৭১৩২৬০৪৭১, ০২৮৬২৬৩৭৬। 

ছুটি রিসোর্ট
ভাওয়াল জাতীয় উদ্যান ঘেঁষে প্রায় ৫০ বিঘা জায়গাজুড়ে গাজীপুরে সুকুন্দি গ্রামেআছে ছুটি রিসোর্ট। গ্রামীণ আবহে অবকাশ যাপনের জন্য উপযোগী করে তৈরি করা হয়েছে এ রিরিসোর্ট। যোগাযোগ- ০১৭৭৭১১৪৪৮৮, ১৭৭৭১১৪৪৯৯ 

দিপালি পিকনিক ও শুটিং স্পট
গাজীপুরের হোতাপাড়ায়র হাটখোলা বাজারে প্রায় ছয় একর জমি নিয়ে প্রতিষ্ঠিত দিপালি পিকনিক ও শুটিং স্পট। মনোররম প্রাকৃতিক পরিবেশের মাঝে এখানে আছে সুইমিং পুল, পুকুর। যোগাযোগ- ০১৭৪৬২০৮৩৪৯। 

নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট
গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার রাজবাড়ি এলকায় শিল্পীদম্পতি তৌকির-বিপাশা গড়ে তুলেছেন নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট। প্রায় ২৫ বিঘার জায়গাজুড়ে তৈরি এই অবসর যাপনকেন্দ্রে আছে দিঘি, কৃত্রিম ঝরনা, সভাকক্ষ, সুইমিংপুলসহ নানান সুবিধা। যোগাযোগ ০২-৯৮৩৫১৭৩, ০১১৯২১৫০৫৬৩, ০১৭৭১৭৯৯৪১০ 

আরশিনগর হলিডে রিসোর্ট
গাজীপুরের ভাওয়াল এলাকায় অবস্থিত বনভোজন কেন্দ্র ও রিসোর্ট। ভাওয়াল জাতীয় উদ্যানের পাশে এ রিসোর্টে আছে আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা। যোগাযোগ ০২ ৯৩৪৪৮৮৯, ০১৭৩২৩৫৪০০৭, ০১৯২৩১১৭০৫৬ 

হ্যাপি ডে ইনন
গাজীপুরের ভাওয়াল জাতীয় উদ্যানের বিপরীত পাশে এটি একটি মূলত বনভোজন কেন্দ্র। যোগাযোগ ০১৯৩৯০৪৭৫৮৬-৮। 

অরণ্যবাস বনভোজন কেন্দ্র
গাজীপুরের পুবাইলে বিলাসারা গ্রামে বনভোজন কেন্দ্র অরণ্যবাস। যোগাযোগ ০১৭১১৪৭৭৪৬৮। 

রাজেন্দ্র_ইকো_রিসোর্ট
গাজীপুর চৌরাস্তা থেকে বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের বিপরীত দিকের বড় সড়ক থেকে ডানের গলিপথ ধরে সবুজের অরণ্যে হঠাটি হারিয়ে জাবেন আপনি। ভবানীপুর বাজার পেরিয়ে চিকন রাস্তা ধরে আরও কিছুটা দূর…। পথের দুধারে ঘন শালবন। যতদূর চোখ যায়, শুধুই গাছ আর গাছ। পুকুরপাড়ের গাছটিতে মাছরাঙা পাখি শিকারের আশায় বসে। পুকুরের তীর ঘেঁষে বকের হাঁটাহাঁটি। হরেক রকম পাখি দেখে মনে হতে পারে, হয়তো কোনো গহীন জঙ্গলে এসে পড়েছেন। সত্যিই গহীন অরণ্য। রাস্তার দুধারে দূরের শালবন ছাড়াও খেজুরগাছ, বটগাছ। রাস্তার পাশে আদিবাসীদের কিছু বাড়িঘর।http://rajendraecoresort.com/ফোনঃ ৫৮০৭০৮৪০,০১৯১৯৩১৮০০৯ 

হাসনাহেনা পিকনিক স্পট
টঙ্গী থেকে প্রায় আট কিলোমিটার দূরে গাজীপুরের পুবাইল কলেজগেটে অবস্থিত হাসনাহেনা পিকনিক স্পট। পারিবারিক বনভোজনের জন্য এটি একটি আদর্শ জায়গা। যোগাযোগ- ০১১৯৯৮৭৫৫৭৬, ০১৯১১৪৯৫১২৩। 

আনন্দপার্ক রিসোর্ট
গাজীপুরের কালিয়াকৈরের সফিপুরে প্রায় ৬০ বিঘা জায়গাজুড়ে আছে আনন্দপার্ক রিসোর্ট। কটেজ ছাড়াও এখানে আছে বনভোজনের সবরকম ব্যবস্থা। এ রিসোর্টে আছে তিনটি স্বতন্ত্র বনভোজন কেন্দ্র, ছয়টি আধুনিক কটেজ, সুইমিং পুল ইত্যাদি। যোগাযোগ ০২ ৯১২৫৭৭৮, ০১৭৪৩৮৩৮১২৩। 

ড্রিম স্কয়ার
গাজীপুরের মাওনায় ১২০ বিঘা জমির ওপর নির্মিত রিসোর্ট। নানান প্রজাতির ফলজ, বনজ ও ঔষধি গাছের সমাহার আছে যায়গাটিতে। গ্রাম বাংলার নানান নিদর্শনও দেখা যাবে এখানে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ হল: তেলের ঘানি, গরুর খামার, মাছ চাষ, বায়োগ্যাস প্লান্ট ইত্যাদি। যোগাযোগ ০১৭৫৫৬০৩৩১০, ০১৭৫৫৬০৩৩১১। 

অঙ্গনা
গাজীপুরের কাপাসিয়ায় সূর্যনারায়ণপুর গ্রামে প্রায় ১৮ বিঘা জায়গাজুড়ে লালমাটির টিলাঘেরা যায়গায় এ রিসোর্ট। এখানে আছে খেলার মাঠ, বড় বড় পুকুর আর জলাশয়। সুইমিং পুলও আছে অঙ্গনায়। এছাড়া এখানকার ডিয়ার পার্কে আছে বেশ কিছু চিত্রা হরিণ। যোগাযোগ- ০১৭১১৫২৭৩৭৩, ০১৭১১১৮২৬২৬। 

সী গাল
গাজীপুরের মাওনা এলাকার সিংগারদিঘি গ্রামে প্রায় ৪২ বিঘা জমির ওপর নির্মিত এই জায়গা দেশি-বিদেশি নানান গাছে শোভিত। আছে ১৮টি কটেজ। যোগাযোগ ০১৭৩২৮৬৬৮৬৬, ০১৭১১০৫৭৪৮৫। 

সাবাহ গার্ডেন
গাজীপুরের বাঘারবাজারে প্রায় ৩৬ বিঘা জায়গাজুড়ে সাবাহ গার্ডেন রিসোর্ট। এ রিসোর্টে নানান গাছপালার মাঝে আছে মনীষীদের প্রতিকৃতি। এছাড়া একটি পাঠাগারও আছে এ রিসোর্টে। যোগাযেগা ০২-৫৫০৩৫১৯৪, ০১৭১১৮৭৩৮৯৫। 

সিজি ফিশিং রিসোর্ট
গাজীপুরের কালিগঞ্জে বড় নগর বাস স্টেশন থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে এ রিসোর্টের মূল বৈশিষ্ট্য অতিথিরা এখানে মাছ ধরার সুযোগ পাবেন। এছাড়াও এখানে ছোট ও বড়দের আলাদা সুইমিং পুল আছে। পুকুরে নৌ ভ্রমণও করতে পারবেন অতিথিরা। যোগাযোগ-০১৭১৭৩৭৪৭০৪০, ১৮৩০১৬৬৫১১। 

নুহাশপলস্নী
জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের বাগানবাড়ি ও শুটিং স্পট। প্রায় ৯০ বিঘা জায়গা নিয়ে এই নন্দন কাননে আছে একটি ছোট আকারের চিড়িয়াখানা, শান বাঁধানো ঘাটসহ একটি বিশাল পুকুর, দৃষ্টিনন্দন কটেজ, ট্রি হাউস বা গাছবাড়িসহ আরো অনেক আয়োজন। নুহাশ পলস্নীর ভেতরের বিশেষ আকর্ষণ হলো_এর ঔষধি গাছের বাগান। এত সমৃদ্ধ ঔষধি বাগান এদেশে বিরল। সবমিলিয়ে নুহাশপলস্নী একটি ছবির মতো সাজানো-গোছানো এক প্রান্তর, যেখানে গেলে ভালো লাগবে সবার। ডিসেম্বর, জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি এই তিনমাস বনভোজনের অনুমতি মেলে নুহাশপলস্নীতে। যোগাযোগ :০১৭১২০৬০৯৭১ 

গুলবাগিচা
সফিপুর আনসার একাডেমির কাছে গুলবাগিচা পিকনিক ও শুটিং স্পট। প্রায় ১৫ বিঘা জায়গার উপরে বিস্তৃত এ পাঁচটি কটেজ। ছোট লেকে প্যাডেল বোড চালানোর সুযোগ আছে এখানে। এছাড়া নানা রকম পাখিও আছে এখানকার খাচায়। যোগাযোগ ০১৭১৬৬৩৩৫৬৬, ০১৭৩৩১৬৭৪১৩। 

পিএসসিসি রিসোর্ট
গাজীপুরের ভাদুনে আছে পুবাইল সোশিও কালচারাল সেন্টার বা পিএসসিসি। বনভোজন ও অবকাশ যাপনের নানান ব্যবস্থা আছে। সবুজে ঢাকা বিস্তৃত এলাকাজুড়ে এ রিসোর্টে আছে লেক, খেলার মাঠ, খোলা প্রান্তর। যোগাযোগ ০১৭৩০৭১০৩৪১, ০১৭০৩২৩৪৫৮৩। 

গ্রীনটেক রিসোর্ট
২০১০ সালে গাজীপুর জেলার ভবানীপুরে প্রায় ৬ একর জায়গা নিয়ে অবস্থিত গ্রীনটেক রিসোর্ট। এখানে রয়েছে ৭৩টি রুম, একটি অডিটেরিয়াম, দুটি কনফরেন্স রুম, একটি সুমিং পুল, দুটি ডায়নিং হল, আর দুটি পুকুর। সম্পূর্ণ শীতাতাপ নিয়ন্ত্রিত এখানে রয়েছে ইনডোর, আউটডোর গেমের সকল সুবিধা। পুরো রিসোর্টটি রয়েছে ওয়াই ফাই সংযোগ। এখানে সর্বনিম্ন তিন হাজার থেকে সর্বচ্চো দশ হাজার টাকা পর্যন্ত রুম ভাড়া পাওয়া যায়। যোগাযোগ:হোটেল রেডিয়াল প্যালেস,রোড-৮, ব্লক-সি,বনানী, ঢাকা।০১৭১৫১০৫৭৭০,০১৯১৯৩১৮০০৯, www.greentech-resort.com 

সোহাগপল্লী
১১ একর সবুজে ঘেরা জায়গাজুড়ে এ রিসোর্টের প্রধান আকর্ষণ কৃত্রিম লেকের উপর ঝুলন্ত সাঁকো। লেকের স্বচ্ছ পানিতে নানা রকম মাছও আছে। আছে কয়েকটি ভালো মানের কটেজ। যোগাযোগ ০১৭১২০৪৯৯০৩-৪, ০১৬১২০৪৯৯০৩। 

আফরিন পার্ক রিসোর্ট
জয়দেবপুর চৌরাস্তা থেকে প্রায় দশ কিলোমিটার দূরে গাজীপুর-ময়মনসিংহ সড়কের পাশেই আফরিন পার্ক রিসোর্ট। নানান গাছ-গাছালিতে ঘেরা এ পার্কে আছে বিশাল শান বাঁধানো পুকুর, লেকে নৌকায় বেড়ানোর ব্যবস্থাসহ অবকাশ যাপনের জন্য রিসোর্ট ফোনঃ০১৮১৯২৫৩৩৩৯ 

রাঙ্গামাটি ওয়াটারফ্রন্ট রিসোর্ট
গাজিপুরের শফিপুরে আছে আধুনিক এই রিসোর্ট। সবুজ প্রকৃতির মাঝে এখানে আছে আধুনিক কটেজ, সুইমিং পুল, বনভোজন কেন্দ্র, সভাকক্ষ, রেস্তোরাঁসহ নানান সুবিধা। এছাড়া এখানে আসা অতিথিরা পাবেন মাছ ধরা ও লেকে নৌ ভ্রমণেরও সুযোগ। জায়গাটিতে একসঙ্গে দুই হাজার জনের বনভোজনের সবরকম ব্যবস্থা আছে। এছাড়া শিশুদের বিনোদনের জন্য বেশ কিছু রাইডও আছে রাঙ্গামাটিতে। যোগাযোগ ০১৮১১৪১৪০৭৪, ০১৭১২১৭৭৭০। 

স্প্রিং ভ্যালি রিসোর্ট গাজীপুর
রাজধানী ঢাকার খুব কাছে গাজীপুরের সালনায় গড়ে তোলা হয়েছে স্প্রিং ভ্যালি রিসোর্ট। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সেখানে আনন্দঘন সময় কাটিয়ে আসতে পারেন যে কোনো দিন। যেতে পারেন বন্ধুবান্ধবকে সঙ্গে নিয়ে পিকনিকে। বিয়ের পর হানিমুনে দূরে কোথাও না গিয়ে সময় কাটাতে পারেন এখানেও। নিজে না দেখলে বিশ্বাস করা যায় না এটা একটা রিসোর্ট নাকি স্বর্গভূমি। গ্রামীণ সৌন্দর্যের ১২ বিঘা জমির ওপ র এই রিসোর্টটি পরিচালনা করছে ট্রিপসিলো । এই রিসোর্টে রয়েছে বিশাল এক সুইমিংপুল। এছাড়াও বিনোদনের জন্যে ভিতরে রয়েছে বাচ্চাদের খেলার ব্যাবস্থা, বিশাল খেলার মাঠ এবং পুকুর। সেই পুকুরে ভেসে বেড়াচ্ছে নৌকা, চাইলে সারদিন কাটিয়ে দিতে পারেন মাছ ধরাতেও। মাত্র জনপ্রতি ১২৫০ টাকায় উপভোগ করতে পারেন স্প্রিং ভ্যালি রিসোর্টের সারাদিনের প্যেকেজ- যাতে থাকছে খাওয়া-দাওয়া, সুইমিংপুল, নৌকা ভ্রমন সহ আরও অনেক কিছু। যা অন্যান্য রিসোর্টের তুলুনায় খরচ বেশ কম । ঢাকার খুব কাছে হওয়াতে খুব অল্প সময়েই রিসোর্টটি বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে, তাই ছুটির দিনগুলোতে আগে থেকে বুকিং দিয়ে যাওয়াই ভালো। বকিং এর সরাসরি যোগাযোগ নাম্বারঃ ০১৬৭৩-১১১-৭৭৭,০১৬৮৯-৭৭৭-৪৪৪,০১৮৭৩-১১১-৯৯৯, ঢাকার অফিস ঠিকানাঃ House # 57, Road #05, Bonani DOHS, Dhaka. ওয়েব সাইটঃ www.springvalleyresortbd.com , Facebook Page: www.facebook.com/SpringValleyResortBD


Total Site Views: 642046 | Online: 6