×
বরগুনা জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান

বিবিচিনি শাহী মসজিদ সোনাকাটা সমুদ্র সৈকত লালদিয়া বন ফাতরার বন ও ইকোপার্ক রাখাইন পল্লী টেংরাগিরি বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য
☰ বরগুনা জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান
টেংরাগিরি বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য

পরিচিতি

টেংরাগিরি বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য বঙ্গোপসাগর সংলগ্ন বরগুনা জেলার দক্ষিণাংশে অবস্থিত। বরগুনা জেলা শহর হতে ৪৫ কিঃ মিঃ দক্ষিণ-পূর্বদিকে, কুয়াকাটা জাতীয় উদ্যান হতে পশ্চিমে, ওয়াপদা বেড়ীবাঁধ বড় বগী মৌজার দক্ষিণে এবং বঙ্গোপসাগরের উত্তরে অবস্থিত। এর আয়তন ৪০৪৮.৫৮ হেক্টর । এ বনের বৃক্ষরাজির মধ্যে রয়েছে সুন্দরী, কেওড়া, বাইন, পশুর, কাঁকড়া, রেইনট্রি, জারুল, ধুন্দল, বনকাঁঠাল, বট, তেঁতুল, গেওয়া, করমচা, গরান, শিংড়া, হাররা, হেতাল, গিলালতা, কালিয়ালতা, বলাই, হারগোজা, গোলপাতাসহ অসংখ্য প্রজাতির গাছ-গাছড়া। এ বনে বানর, শুকর, সজারু, শিয়াল, বাদুর, কুকুর, বেজি, চামচিকা, গুইসাপ, গোখরাসাপ, অজগর সাপ, বাবুই, পেঁচা, বউ কথা কও, চিল, শালিক, শ্যামা, টুনটুনি, ঘুঘু, মাছরাঙা, সাদাবক, ডাহুক, দোয়েল, বুলবুলি ইত্যাদিসহ অসংখ্য প্রজাতির বণ্যপ্রাণী রয়েছে। এর মধ্যে আই.ইউ.সি.এন এর তালিকা অনুসারে বিভিন্ন প্রজাতির বণ্যপ্রাণী বিরল ও বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতি হিসেবে চিহ্নিত রয়েছে। এলাকাটি বিভিন্ন ছোট বড় খাল দ্বারা বেষ্টিত। এসব খালসমূহে সারা বছর জোয়ার-ভাটায় পানির প্রবাহ থাকে। এখানে বিদ্যমান পর্যটন সুবিধাদির মধ্যে রয়েছে ৭৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের হরিণের বেষ্টনী, ৭৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের শুকরের বেষ্টনী, ৭৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের মাংশাসী বন্য প্রানীর বেষ্টনী, কুমির প্রজনন কেন্দ্র, বনের ভিতর দিয়ে সমুদ্র সৈকত পর্যন্ত ৩.৫০ কিঃ মিঃ দৈর্ঘ্যরে ইট বিছানো রাস্তা, পিকনিক স্পট, গোলঘর, টয়লেট এবং জেটি।


অবস্থান ও যাতায়াত

ঢাকা হতে সড়ক পথে কিংবা লঞ্চযোগে বরিশাল অথবা পটুয়াখালী গিয়ে সেখান থেকে সড়ক ও নৌপথে টেংরাগিরি বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য এলাকায় ভ্রমনের সুযোগ রয়েছে। ঢাকা থেকে নদী ও সড়কপথে বরগুনা আসা যায়। ঢাকার সদরঘাট থেকে এমভি বন্ধন-৭ (০১৮২১১৬৫৮৭৫) এক দিন পর এক দিন চলাচল করে এ পথে। ভাড়া প্রথম শ্রেণীর দ্বৈত কেবিন ১২৫০ টাকা, একক কেবিন ৬৫০ টাকা। তৃতীয় শ্রেণীর ডেকে ভাড়া ২৫০ টাকা। ঢাকার গাবতলী থেকে দ্রুতি পরিবহন (০১১৯৬০৯৫০৩৩), সাকুরা পরিবহন (০১১৯০৬৫৮৭৭২) বরগুনা যায়, ভাড়া ৩৫০ টাকা। সায়দাবাদ থেকে সাকুরা পরিবহন (০১৭২৫০৬০০৩৩), মিয়া পরিবহন (০১৭১১৯৪৭৭৭৮), আব্দুল্লাহ পরিবহন (০১৭২০৬২৫৮০৯) যায় বরগুনা সদরে। ভাড়া ৩৫০-৪৫০ টাকা। বরগুনা হতে তালতলীর দূরত্ব প্রায় ১৭ কিলোমিটার। জেলা সদর থেকে বাস, টেম্পু ছাড়াও নৌকায় যাওয়া যাবে তালতলী। সেখান থেকে জায়গাটিতে যাওয়ার সবচেয়ে সহজ বাহন নৌকা। এ জায়গা থেকে নদীপথে কুয়াকাটা যেতে ঘণ্টাখানেক সময় লাগে। এ ভ্রমণে তাই কুয়াকাটাও বেড়িয়ে আসতে পারেন। আবার কুয়াকাটা ভ্রমণে গেলেও সহজেই এ জায়গা থেকে বেরিয়ে আসতে পারেন।


Total Site Views: 846015 | Online: 9