×
বগুড়া জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান

বাবা আদমের মাজার ও আদমদিঘীর প্রখ্যাত দিঘী সাউদিয়া সিটি পার্ক মহাস্থানগড় ঐতিহাসিক যোগীর ভবনের মন্দির পাঁচপীর মাজার, কাহালু সারিয়াকান্দির পানি বন্দর বাবুর পুকুরের গণকবর,শাজাহানপুর জয়পীরের মাজার,দুপচাচিয়া সান্তাহার সাইলো দেওতা খানকা হ্ মাজার শরিফ,নন্দীগ্রাম গোকুল মেধ- বেহুলা লক্ষ্মীন্দরের বাসর ঘর পোড়াদহের মাছের মেলা
☰ বগুড়া জেলার উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান
গোকুল মেধ- বেহুলা লক্ষ্মীন্দরের বাসর ঘর

পরিচিতি

গোকুল মেধ বগুড়া সদর থানার অন্তর্গত গোকুল গ্রামে খননকৃত একটি প্রত্নস্থল। স্থানীয়ভাবে এটি বেহুলার বাসর ঘর নামেই বেশি পরিচিত। অনেকে একে লক্ষ্মীন্দরের মেধ বলে থাকে। এটি বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর এর তালিকাভুক্ত অন্যতম প্রত্নতাত্ত্বিক স্থান। বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তররের মতে আনুমানিক খৃস্টাব্দ ৭ম শতাব্দি থেকে ১২শ শতাব্দির মধ্যে এটা নির্মিত হয়। বলা হয়ে থাকে এখানে বেহুলার বাসর হয়েছিল। যা সেন যুগের অনেক পূর্বেকার ঘটনা। তবে বর্তমান গবেষকদের মতে এমনুমেন্ট ৮০৯ থেকে ৮৪৭ খৃস্টাব্দে দেবপাল নির্মিত একটি বৈদ্যমঠ। এখানে বহু গর্তযুক্ত একটি ছোট প্রস্তর খন্ডের সঙ্গে ষাঁড়ের প্রতিকৃতি একটি স্বর্ণ পত্র পাওয়া গিয়েছিল। এ থেকে ধারণা করা হয়, এটি একটি বর্গাকৃতির শীব মন্দির ছিলো। বিখ্যাত পর্যটক ইবনে বতুতা ও হিউয়েন সাং তাদের ভ্রমণ কাহিনীতে এটাকে বৌদ্ধ মঠ হিসেবে উল্লেখ করেছিলেন বলে জানা যায়। আবার কোনো কোনো ঐতিহাসিক গ্রন্থে এই মেধকে একটি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, এটি নির্মাণ করা হয়েছিল পৌণ্ড্রবর্ধন রাজধানীকে বাইরের শত্রু থেকে রক্ষা করার জন্য। ইস্টক নির্মিত এ স্ত্তপটি পূর্ব পশ্চিমে অপেক্ষাকৃত দীর্ঘ। এখানে ত্রিকোন বিশিষ্ট ১৭২ টি কক্ষ আছে। এ কক্ষগুলোর দেখতে বেশ অস্বাভাবিক এবং এলোমেলো বুনিয়াদ এর বোধগম্যতাকে আরো দুর্বোধ করে তোলে। এই স্ত্তপটিই বাসর ঘর নয়। এই স্ত্তপটির পশ্চিম অংশে আছে বাসর ঘরের প্রবাদ স্মৃতিচিহ্ন। পূর্ব অংশে রয়েছে ২৪ কোন বিশিষ্ট চৌবাচ্চাসদৃশ একটি স্নান ঘর। উক্ত স্নান ঘরের মধ্যে ছিল ৮ ফুট গভীর একটি কুপ। কুপটিতে বেহুলা লক্ষ্মীন্দর মধুনিশি যাপনের পর কুপের ক্ষিতজলে স্নান করে তাতে শুদ্ধতা লাভ করতে সক্ষম হতেন।


অবস্থান ও যাতায়াত

মহাস্থানগড় বাস স্ট্যান্ড থেকে প্রায় ২ কি.মি দক্ষিণ পশ্চিমে গোকুল নামক গ্রাম এবং গোকুল, রামশহর ও পলাশবাড়ি গ্রাম তিনটির সংযোগ স্থলে এটি অবস্থিত।


Total Site Views: 842125 | Online: 6